রেলস্টেশনে রাশিয়ার রকেট হামলায় ৩৯ জন নিহত, বহু আহত

০৮ এপ্রিল,২০২২

রেলস্টেশনে রাশিয়ার রকেট হামলায় ৩৯ জন নিহত: ইউক্রেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: ইউক্রেনের দোনেৎস্ক অঞ্চলের ক্রামতোর্স্ক রেলস্টেশনে রাশিয়ার রকেট হামলায় ৩৯ জনের বেশি নিহত এবং শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় রেল কোম্পানি।

এ স্টেশনটি পূর্ব ইউক্রেনের বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়ার কাজে ব্যবহারের জন্য বেশ পরিচিত।

দোনেৎস্কের গভর্নর পাভলো কিরিলেনকো বলেন, হামলার সময় স্টেশনে হাজারো মানুষ ছিল। তারা ওই অঞ্চল থেকে সরে যাওয়ার জন্য ট্রেনে উঠার চেষ্টা করছিলেন।

ইউক্রেনীয় রেলের প্রধান অলেক্সান্ডার কামিশিন বলেছেন, দুটি রকেট স্টেশনটিতে আঘাত হেনেছে।

এ ঘটনার পর ক্রামতোর্স্ক সিটি কাউন্সিল নাগরিকদের আশ্রয়কেন্দ্রে থাকার বিষয়ে সতর্ক করেছে। তবে রাশিয়ার পক্ষ থেকে এ অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

বুচার চেয়ে বোরোদিয়াংকা শহরের পরিস্থিতি আরো মারাত্মক’
বুচা শহর ছেড়ে রুশ বাহিনী সরে যাওয়ার পর সেখানে বেসামরিক নাগরিকদের হত্যাকাণ্ডের চিত্র উঠে এসেছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে। এবার দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দাবি করলেন বুচার পাশের শহর বোরোদিয়াংকায় পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ।

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত বোরোদিয়াংকা। বুচা থেকে এর দূরত্ব মাত্র ২৫ কিলোমিটার। ২৪ ফেব্রুয়ারি রুশ আগ্রাসন শুরুর কয়েক দিনের মধ্যেই শহরটি দখল করে রুশ বাহিনী। গত সপ্তাহে সেখান থেকে সরে যায় তারা।

রুশ সৈন্যরা চলে যাওয়ার পর পালিয়ে যাওয়া বাসিন্দারা ধীরে ধীরে শহরটিতে ফিরতে শুরু করেছেন। বিমান হামলা ও মর্টার শেলের আঘাতে শহরটি ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। কোনো ভবনই এখন আর আস্ত নেই।

বোরোদিয়াংকার বাসিন্দারা ধ্বংসপ্রাপ্ত একটি অ্যাপার্টমেন্ট বিল্ডিংয়ের ধ্বংসাবশেষে লাশ ও জিনিসপত্রের সন্ধান করছেন।

শহর কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, বুচা শহরে বেসামরিক নাগরিকদের রাস্তায় গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। অন্যদিকে বোরোদিয়াংকায় বেসামরিক নাগরিকদের বাসাবাড়ি বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বোরোদিয়াংকা শহরের বাসিন্দা ভাদিম জেগ্রেবেলনি জানিয়েছেন, তার মা, ভাই ও অন্য স্বজনেরা একটি ভবনের বেসমেন্টে আশ্রয় নেয়ায় বেঁচে গেছেন। কিন্তু ভবনটির ওপরের তলাগুলোতেও বোমাবর্ষণের সময় মানুষ ছিলেন। এবং তারা আর বের হতে পারেননি।

টেলিগ্রামে পোস্ট করা এক ভিডিওতে জেলেনস্কি বুচার চেয়ে বোরোদিয়াংকার পরিস্থিতি আরো খারাপ দাবি করে বলেন, এখানে পরিস্থিতি আরো খারাপ। রুশ দখলদাররা আরো বেশি মানুষকে হতাহত করেছে এখানে। তবে হতাহতের কোনো সংখ্যা বা সুনির্দিষ্ট প্রমাণ তিনি দাখিল করেননি।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ইউক্রেনে রাশিয়ান সেনাদের ভয়ঙ্কর নৃশংসতার জন্য অভিযুক্ত করেছেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্তদের বিচারে স্থাপন করা নুরেমবার্গে ট্রাইব্যুনালের মতো একটি ট্রাইব্যুনাল গঠনের জন্য জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য

মতামত দিন

ইউরোপ পাতার আরো খবর

সম্মেলন থেকে চীনকে ন্যাটোর হুঁশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে শুরু হয়েছে ন্যাটো সম্মেলন। সোমবার সম্মেলন শুরুর প্রথম দিনই আ . . . বিস্তারিত

সীমা অতিক্রম করলে দ্রুত কঠোর পরিণতি: পশ্চিমা বিশ্বকে পুতিনের হুশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনমস্কো: ভ্লাদিমির পুতিন এমনিতে স্বল্পভাষী। জনসমক্ষে বাগাড়ম্বর করা বা হুমকি-ধমকি দেওয়ার লোক তিন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 

ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com