সৈন্য সংখ্যা বাড়াতে মরিয়া রাশিয়া

২৬ আগস্ট,২০২২

সৈন্য সংখ্যা বাড়াতে মরিয়া রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: ইউক্রেনের সাথে চলমান যুদ্ধে কাঙ্খিত ফলাফল না পেয়ে নানা কৌশল নিচ্ছে রাশিয়া। তারই অংশ হিসাবে সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়া তাদের সেনাবাহিনী আধুনিকায়নের চেষ্টা করছে।

রাশিয়ার সেনাবাহিনীতে আগামী কয়েকমাসে এক লক্ষ সাইত্রিশ হাজারের মতো সৈন্য বাড়তে পারে।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ সংক্রান্ত একটি ডিক্রি জারি করেছেন। বর্তমানে রাশিয়ার সামরিক বাহিনীতে নিয়মিত সৈন্য সংখ্যা ১০ লাখের বেশি। এছাড়া আরো নয় লাখ বেসামরিক স্টাফ রয়েছে।

প্রেসিডেন্ট পুতিনের ডিক্রি এমন এক সময়ে আসলো যখন রাশিয়ায় সামরিক বাহিনীতে জনবল বাড়ানোর জন্য দেশজুড়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে।

এই ডিক্রির মাধ্যমে সৈন্যদের নগদ অর্থের প্রণোদনাও দেয়া হচ্ছে।

বিভিন্ন খবরে জানা যাচ্ছে, নিয়োগকারীরা রাশিয়ার বিভিন্ন কারাগার পরিদর্শনে যাচ্ছেন। সেখানে গিয়ে তারা কয়েদিদের মুক্তি করা এবং নগদ অর্থের প্রতিশ্রুতি দেয়া হচ্ছে।

দুই সপ্তাহ আগে ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে স্বেচ্ছাসেবীদের দ্বারা ব্যাটালিয়ন গঠন করা হচ্ছে। এসব ব্যাটালিয়ন সামরিক বাহিনীর অংশ হবে।

তবে ইউক্রেনে যুদ্ধ করতে স্বেচ্ছাসেবী ব্যাটালিয়ন গঠন করার জন্য পর্যাপ্ত লোক পাওয়া যাচ্ছে না বলে ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

রাশিয়া যখন ইউক্রেনে আক্রমণ শুরু করে তখন বিষয়টিকে সংক্ষিপ্ত এবং সুনিদ্দির্ষ্ট লক্ষ্য অর্জনের জন্য করা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছিল।

কিন্তু ইউক্রেনের দিক থেকে তীব্র প্রতিরোধের কারণে রাশিয়ার সে অগ্রগতি থমকে গেছে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের জারি করা ডিক্রিতে দেশটির সামরিক বাহিনীতে লোকবলের সংখ্যা বিশ লাখ ঊনচল্লিশ হাজার সাতশ আটান্ন জন বলা হয়েছে। এর মধ্যে এগারো লাখ পঞ্চাশ ছয়শত আটাশ জন নিয়মিত সৈন্য।

নতুন করে নিয়োগ প্রক্রিয়ার জন্য ফেডারেল সরকারের বাজেট থেকে অর্থ বরাদ্দের জন্য বলা হয়েছে। ২০২৩ সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে এটি কার্যকর হবে।

রাশিয়াতে বর্তমানে ১৮ থেকে ২৭ বছর বয়সী পুরুষদের সামরিক বাহিনীতে এক বছর কাজ করার জন্য সরকার চাইলে ডাকতে পারে। সেক্ষেত্রে তাদের যোগ দেয়া বাধ্যতামূলক।

তবে কারো যদি স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি থাকে কিংবা উচ্চ শিক্ষায় ভর্তি হবার মাধ্যমে যোগ নাও দিতে পারে কিংবা তাদের কাজের মেয়াদ কমিয়ে আনতে পারে।

নতুন নিয়োগের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবীর সংখ্যা বাড়ানো হবে নাকি সমারিক বাহিনীর জন্য বেসামরিক লোকদের বাধ্যতামূলক ডাকা হবে - সেটি এখনো পরিষ্কার নয়।

তবে রাশিয়ার আইন অনুযায়ী এ ধরণের ব্যক্তিদের যুদ্ধে যাবার ক্ষেত্রে চার মাসের সামরিক প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক।

মন্তব্য

মতামত দিন

ইউরোপ পাতার আরো খবর

সম্মেলন থেকে চীনকে ন্যাটোর হুঁশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে শুরু হয়েছে ন্যাটো সম্মেলন। সোমবার সম্মেলন শুরুর প্রথম দিনই আ . . . বিস্তারিত

সীমা অতিক্রম করলে দ্রুত কঠোর পরিণতি: পশ্চিমা বিশ্বকে পুতিনের হুশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনমস্কো: ভ্লাদিমির পুতিন এমনিতে স্বল্পভাষী। জনসমক্ষে বাগাড়ম্বর করা বা হুমকি-ধমকি দেওয়ার লোক তিন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 

ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com